ইতালিতে স্বাধীনতা দিবস ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত

ইতালিতে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে ২৭ মার্চ সন্ধ্যায় রোমে একটি অভিজাত হোটেলে কূটনৈতিক কোরের সম্মানে এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে বাংলাদেশের উন্নয়ন এবং পর্যটনের উপর নির্মিত প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন করা হয়। পরবর্তীতে রাষ্ট্রদূত স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন। সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইতিহাস, তাৎপর্য এবং সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন, নারীর ক্ষমতায়ন, দারিদ্র্য বিমোচন, বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশের অবদান ও অর্জন তুলে ধরেন। এছাড়া রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশ ও ইতালির মধ্যকার সম্পর্কের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে আগামী দিনে দুই দেশের সম্পর্ক আরও শক্তিশালী করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

অনুষ্ঠানে গেস্ট অব অনার হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইতালির অর্থনৈতিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী আন্দ্রে চাউফি। তিনি স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানান।সংক্ষিপ্ত আলোচনার পর রাষ্ট্রদূত আগত অতিথিদের সঙ্গে নিয়ে কেক কাটেন এবং এর মাধ্যমে স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ভারত, যুক্তরাষ্ট্র, চীন, অস্ট্রেলিয়া, মালয়েশিয়া, শ্রীলংকা, থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া, কাতার, হাঙ্গেরি, কসোভো, সেনেগাল, ভেনিজুয়েলা, কিউবাসহ প্রায় ২০টি দেশের রাষ্ট্রদূত, ৬৫টি দেশের কূটনীতিকবৃন্দ; জাতিসংঘের ৩টি আন্তর্জাতিক সংস্থার ৪০ জন উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তা, খ্যাতনামা লা স্যাপিয়েঞ্জা, লুইস, জন ক্যাবত, ইউনিক্যামুলাস বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর, বিখ্যাত পেট্রোলিয়াম কোম্পানি এনি এর ভাইস প্রেসিডেন্টসহ বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক সংগঠনের প্রতিনিধিবৃন্দ এবং কমিউনিটির সদস্যরা অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে প্রবাসী খ্যাতনামা শিল্পীগনের অংশগ্রহণে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে শিশুদের নাচ ও গান আমন্ত্রিত অতিথিদের মুগ্ধ করে। শেষে বাংলার ঐতিহ্যবাহী খাবার পরিবেশন করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.